অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা Deggendorf Institute of Technology (Master of Electrical and Information Tech)



জার্মানিতে প্রায় সকল ইউনিতে অনলাইনে কোন ধরনের ভর্তি পরীক্ষা দেওযা ছাড়া ভর্তি হওয়া যায়। তবে হাতেগোনা যে কয়েকটা ইউনিতে নির্দিষ্ট কয়েকটা বিভাগে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা নেয়, তার মধ্যে Deggendorf Institute of Technology ইউনিতে মাস্টার্সে ভর্তি হবার জন্য Electrical and Information Technology ডিপার্টমেন্ট অন্যতম। প্রথমেই একটা কনফিউশন দূর করে দিচ্ছি, একই ইউনিতে আবেদনের পরে অন্যান্য বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা নেয় না। তারমানে শুধু Electrical and Information Technology ডিপার্টমেন্ট এই সাব্জেক্টে মাস্টার্স করতে চাইলে ভর্তি পরীক্ষা নেয়।

আমি এই লেখা লেখার একটু আগে DIT এর অনলাইনের এক্সাম দিয়েছি। তাই নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করলাম।

প্রথমে আমাকে আগে শিডিউল নিতে হয়েছে ProctorU নামের একটি কোম্পানির কাছ থেকে। তারা শিডিউল দিবে ২৬.২৬$ বিনিময়ে। আমার কাছে Pioneer মাস্টারকার্ড ছিলো। ওটা দিয়েই আমি তাদেরকে পে করেছি। এরপর আমি, যথাসময়ে এক্সাম দিতে বসলাম। সাথে আমার NID card, pen, 3 sketch paper, scientific calculator নিয়ে বসেছি। এরপর পিসিতে ক্লিক দিতে দিতে সামনে আগালাম। এরপর একজন এজেন্ট আমার পিসির নিয়ন্ত্রন নিল। সেই এজেন্ট ওয়েবক্যাম এর মাধ্যমে আমার রুমের পুরাটা দেখতে চাইবে। আর, দেখবে আমার রুমে কেউ আছে নাকি? ডান-বাম পাশে সব দেখবে। বিশেষ করে পিসির পিছনে দেখতে চাইবে। যদি ওয়েবক্যাম ঘুরানো যায় তাহলে ঘুরিয়ে দেখাতে হবে। আর যদি ওয়েবক্যাম ঘুরানো না যায় তাহলে সেলফোনের সামনের সেল্ফি ক্যামেরা অন করে ওয়েবক্যামের সামনে রাখতে বলবে। এতো সেল্ফি ক্যামেরা মিরর হয়ে এজেন্ট দেখতে পারবে পিছনে কিছু আছে কিনা। এরপর, সেই এজেন্ট sketch paper দেখতে চাইবে, কিছু লিখা আছে কিনা। এরপর ক্যালকুলেটর দেখবে। সবকিছু ঠিক থাকতে এজেন্ট DIT এর সার্ভারে ঢুকে একটি পাসওয়ার্ড দিয়ে লগিং করে দিবে। এরপর পরই পরিক্ষা শুরু হয়ে যাবে এবং স্ক্রিনের ডান পাশে সময় উঠতে থাকবে। এক্সাম আমি যত কঠিন মনে করেছিলাম এত কঠিন হয় নাই। অনেক বেসিক প্রশ্ন করেছিল কিন্তু আবার অনেক অনেক কঠিন প্রশ্নও ছিল, কিন্তু অল্প ছিল। পুরো পরীক্ষা ছিলো বেসিক ইঞ্জিনিয়ারিং কেন্দ্রিক। সেখানে মোট ৪টা ধাপ ছিলো। Math, Physics, Electrostatic এবং Basic electrical। পুরো পরীক্ষার বলা যায় ৯৯.৯৯ ভাগ MCQ প্রশ্ন ছিলো। জাস্ট একটা প্রশ্নের বক্স থেকে একটা অংক সমাধান করে উত্তর লেখতে হয়েছে। তাছাড়া বাকি গুলো MCQ প্রশ্ন ছিলো। সর্বমোট ১৮টি প্রশ্ন ছিল। পুরো পরীক্ষার সময় ছিলো ১ ঘন্টা ৩০ মিনিট। অনেক অনেক সময়। আস্তেধীরে এক্সাম দিলাম। ওরা আগে থেকেই আমাকে টপিক বলে দেবার কারনে সেই কেন্দ্রিক প্রস্তুতি নিয়ে ছিলাম। তাছাড়া স্যাম্পল প্রশ্নও ছিলো। যদিও স্যাম্পল প্রশ্নের সাথে বাস্তব প্রশ্নের কোন মিল ছিলো না। আপনারা স্যাম্পল প্রশ্ন তাদের সাইটে পেতে চাইলে এই লিঙ্ক থেকে পেতে পারেন। তাছাড়াও আমি পোস্টের নীচের দিকে পুরো পরীক্ষার স্যাম্পল প্রশ্ন তুলে ধরলাম https://www.th-deg.de/files/0/fakultaet_et-mt/et-m-zulassungspruefung.pdf?fbclid=IwAR2nN5uqhzYoPEXjxbPypv02ZzfgnoPNLqyA2YfuR4gTAf9_uW_Wj7L_JGA

এক্সামে যে প্রশ্ন করেছিলো তার সাথে B.Sc এর ফার্স্ট ইয়ার এনাফ। এক্সাম শেষ করে সেই sketch paper গুলা ওয়েবক্যামের সামনে ছিড়ে ফেলতে হয়। অরা যখন বলবে Ok. তখন আপনার এক্সাম শেষ হয়ে যাবে ফাইনালি। এভাবেই আমার Deggendorf Institute of Technology তে অনলাইনে পরীক্ষা দেবার অভিজ্ঞতা শেষ হয়েছে।








লিখেছেন Tuhin William

এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপের মাধ্যমে করতে পারেন।

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।