আমার জার্মানি আসার অভিজ্ঞতা (সকল ধাপসমুহ নিজে নিজে আবেদন করা থেকে ভিসা পাওয়া পর্যন্ত)


লিখেছেনঃ নজরুল শান্ত


প্রথমেই বলে রাখা ভালো যে আমার জ্ঞানের পরিধি অনেক কম। এখানে আমি আমার পার্সোনাল অপেনিয়ন শেয়ার করছি মাত্র। ইনফরমেশনের কোন ল্যাকিংস থাকলে কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন। জার্মানিতে নরমালি


২ টা সেমিস্টার হয়ে থাকে। ইউনিভার্সিটি ভেদে উইন্টার সেমিস্টারের এপ্লাই শুরু হয় পহেলা মার্চ থেকে, চলে ১৫ জুলাই পর্যন্ত। আর সামার সেমিস্টারের এপ্লাই শুরু হয় পহেলা নভেম্বর থেকে যা ইউনিভার্সিটি ভেদে চলে ১৫ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত। প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত স্টেপ বাই স্টেপ ফলো করলে খুব ইজিলি আপনার জন্য জার্মানি আসা পসিবল।


# প্রথমেই আপনাকে যা করতে হবে। https://www2.daad.de/deutschland/studienangebote/international-programmes/en/?fbclid=IwAR1S1qam193SC3H8A6mBbR1eVZqq1o52fkSKcbIpHfCj_KZRrm_V3f78_qY এই ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার প্রোফাইলের সাথে ম্যাচ করে অথবা আপনি যেই সাবজেক্টে, ইউনিভার্সিটিতে পড়তে চান তা খুঁজে বের করতে হবে।


# সিলেক্ট করা হয়ে গেলে আপনাকে ইউনি অ্যাসিস্টে (যা বর্তমানে মাই এসিস্ট নামে পরিচিত) একাউন্ট খুলতে হবে। https://my.uni-assist.de/

একাউন্ট করা হয়ে গেলে আপনার সব ইনফরমেশন + রিকোয়ার্মেন্ট অনুযায়ী ডকুমেন্ট আপলোড করে দিয়ে সেখানে আপনার আগে থেকে সিলেক্ট করা সাবজেক্টে এপ্লাই করে দিন। তবে কিছু কিছু ইউনিভার্সিটিতে ডাইরেক্ট এপ্লাই করতে হয়। সেক্ষেত্রে সরাসরি ইউনিভার্সিটির ওয়েবসাইটে আবেদন করতে হয়।


# ডাইরেক্ট এপ্লাই গুলো সারারণত ফ্রি হয়। উনি অ্যাসিষ্টের অ্যাপ্লিকেশন ফি প্রথম টা ৭৫ ইউরো। পরের গুলো থেকে ৩০ ইউরো। ধরুন আপনি ৪ টা এপ্লাই করলেন। তাহলে আপনাকে ৭৫ + ৩০ + ৩০ + ৩০ = ১৬৫ ইউরো পে করতে হবে। পে করার জন্য যে কোন ক্রেডিট কার্ড ইউজ করতে পারেন। আমি EBL এর aqua কার্ড ইউজ করেছিলাম।


# পে করার পরে আপনার সকল ডকুমেন্টস নোটারি করে অথবা এম্ব্যাসি থেকে এটাস্টেড করে পাঠিয়ে দিতে হবে উনি এসিস্টের ঠিকানায়। আমি যদিও এম্ব্যাসি থেকে ফ্রীতে করিয়েছিলাম। আপনাদের সময় কম থাকলে আর ঢাকার বাহিরে থাকলে নোটারি করলেও চলবে। প্রতি পেইজ ১০-১৫ টাকা করে নিবে। ইউনিভার্সিটি চাইলে ডকুমেন্টের সাথে আপনি সিভি মোটিভেশন লেটার এবং রিকমেন্ডেশন লেটার পাঠাতে পারেন। মোটিভেশন এবং রিকমেন্ডেশন লেটার কিভাবে লিখবেন জানার জন্য Kafil Mahmud ভাইয়ের এই দুইটি পোস্ট দেখতে পারেন।

https://www.facebook.com/groups/bsfg.pro/permalink/2834578616622092/

https://www.facebook.com/groups/bsfg.pro/permalink/2832420673504553/


# ডকুমেন্ট পাঠানোর জন্য DHL সবথেকে জনপ্রিয় মাধ্যম। ঢাকা শহরে বাসার আসে পাশেই পেয়ে যাবেন এদের অফিস। DHL এ সময় লাগে ২-৩ দিন আর খরচ ২৪০০-২৫০০ এর মত। Express মত কম খরচে পাঠাতে চাইলে মতিঝিলে Fast Express ট্রাই করে দেখতে পারেন। গুগল ম্যাপে সার্চ দিলেই ঠিকানা পেয়ে যাবেন। ১২৫০-১৩০০ টাকায় (ট্রেকিং সহ) ৩-৪ দিনেই ডকুমেন্ট জার্মানিতে পৌঁছে যাবে।


# ইউনি এসিস্ট আপনার ডকুমেন্ট রিসিভ করে আপনাকে কনফার্মেশন মেইল ​​দিবে। এর পর শুধু অপেক্ষার পালা। ৪-৬ সপ্তাহ সময় লাগে এদের ডকুমেন্ট প্রসেসিং করতে। ডকুমেন্ট প্রসেসিং করে তারা ইউনিভার্সিটিতে পাঠিয়ে দিবে এবং আপনাকে একটি ইভালুয়েশন রিপোর্ট দিবে। আপনার কোন ডকুমেন্ট মিসিং থাকলেও আপনাকে জানাবে।


# ইউনিভার্সিটি ডকুমেন্ট রিসিভ করার পরে কোর্স ভেদে ১- ১.৫ মাস সময় লাগে অফার লেটার পেতে। তাই ধর্য ধরুন। এই সময়টা নষ্ট না করে বাসায় টুকিটাকি জার্মান ভাষার প্রাকটিস করুন অথবা কোন জার্মান ভাষা কোর্সে ভর্তি হন। জার্মানি আসার পরে এটাই আপনার সব থেকে বেশি কাজে দিবে।


# অফার লেটার পাওয়ার পর এম্বেসী ওয়েবসাইটে গিয়ে ভিসা ইন্টারভিউয়ের জন্য স্লট বুকিং করুন। যদিও আমরা এই কাজটা আগেই করে ফেলি তাই বলেও কোন লাভ নাই। যারা এই সিচুয়েশন ফেস করেছে তারাই বলতে পারবে জার্মানি আসার এপ্লাই প্রসেসে সব থেকে কঠিন কাজ মেবি এটাই। এখনো মনে আছে রোজার মাসে সেহেরী খাওয়ার পর নামাজ পড়ে একদিনও ঘুমাইতাম না 😭😭 । ২-৩ জন মিলে ট্রাই করে পেয়েছিলাম। আর এখনতো নতুন নিয়ম হয়েছে যার আগা মাথা কিছুই আমার বোধগম্য হচ্ছে না 🙄🙄 । সা


মার সেমিস্টারের কাউকে কাউকে নাকি এপ্রিল মাসে ডেট দিচ্ছে 😂 । # অ্যাপয়েন্টমেন্ট নেওয়ার মাঝেই ব্লক একাউন্টের জন্য ফিন্টিবায় একাউন্ট খুলে নিতে পারেন। অনেকে Coracle তেও করে। আপনার যেটা ভালো লাগে করতে পারেন ।তবে ফিন্টিবা আমার কাছে একটু বেশি ইজি এবং কাস্টমার ফ্রেন্ডলী মনে হইছে। ২-৩ দিন লাগে একাউন্ট কনফার্মেশন পেতে।


# ফিন্টিবা কনফার্মেশন পেলে ব্লক মানি ট্রান্সফার করার জন্য যেতে পারেন EBL, সিটি ব্যাংক অথবা সোনালী ব্যাংকে। এটাও আপনার নিজস্ব মতামত। যদি মনে করেন আপনি এক কাপ চা খেতে খেতে ব্লক মানি ট্রান্সফার করে দিবেন তাহলে যেতে পারেন EBL অথবা সিটি ব্যাংকে। আর ১০-১৫ হাজার টাকা সেইফ করতে চাইলে যেতে পারেন সোনালী ব্যাংকে। তাদের সার্ভিস পাবলিক ব্যাংক হলেও যথেষ্ট ভালো ।শুধু কাজগুলো আপনাকে নিজে নিজে করতে হবে। সোনালী ব্যাংকে ব্লক একাউন্ট করার ডিটেইলস জানতে দেখতে পারেন নিচের পোস্টটি: https://m.facebook.com/groups/2265285500218076?view=permalink&id=2335712923175333


# এর পর ভিসা ইন্টারভিউর জন্য আপনাকে ট্রাভেল ইন্সুরেন্স করাতে হবে। এম্ব্যাসি ওয়েবসাইটে ২০ টার মত ইন্সুরেন্স কোম্পানী এর নাম থাক


লেও গ্রীন ডেল্টা এবং ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানী সব থেকে রিজনেবল মনে হইছে আমার কাছে। এম্ব্যাসি ওয়েবসাইটে ১৪ দিনের কথা বলা আছে। আপনি ১৪,২১,২৮ যে কোনটা করতে পারেন। আমি ২১ দিনের করেছিলাম ১৯৩০ টাকা দিয়ে। ট্রাভেল ইন্সুরেন্সের ডেইট থেকে আপনার ভিসার মেয়াদ শুরু হবে। তাই এনরোলমেন্ট এর ডেইট এবং আপনার ট্রাভেল করার ডেটের উপর বেস করে ইন্সুরেন্স করবেন।


# যে কোন স্টুডিও থেকেই বায়োমট্রিক ছবি তুলতে পারেন। সাইজ ৩৫ * ৪৫। মোটামুটি সব ভালো দোকানে গিয়ে বললেই হবে জার্মান এম্বাসির জন্য। ছবি কয়েক রকমের একবারে ১৫-২০ টা করে নিতে পারেন। এইখানে আসার পরও আপনার ছবির প্রয়োজন হবে ।আর জার্মানিতে ছবি তোলা এক্সপেন্সিভ একটু। ৪ কপি ৫-৬ ইউরো। গুলশানের গুলশানের VIP স্টুডিও থেকে ২০ কপি করেছিলাম ৫০০ টাকা দিয়ে।


# সব ঠিকঠাক হয়ে গেলে জার্মানি এম্বাসির ওয়েবসাইট থেকে ভিসা অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম পূরণ করতে হবে। এবং এম্বাসির স্টুডেন্ট ভিসা অ্যাপ্লিকেশন চেকলিস্ট দেখে সেই অনুযায়ী ডকুমেন্ট নিয়ে নির্দিষ্ট দিনে এম্বাসিতে হাজির হয় যাবেন।


# ভিসা ইন্টারভিউ নিয়ে টেনশনের কিছু নাই। Honestly বলতে গেলে এই ইন্টারভিউটা আমার কাছে জাস্ট একটা ফরমালিটি ছাড়া আর কিছু মনে হয় নাই। আপনার ডকুমেন্ট জমা নেয়ার সময় আপনার সাথে শুধু একটু কথা বলে এই আর কি 😂 । সেইটা নিয়ে অন্য কোনো দিন বলবো। সাধারণত ৪-৬ সপ্তাহের মধ্যেই ডিসিশন পেয়ে যাবেন। ডকুমেন্ট অথেনটিক হলে আপনার ভিসা রিজেক্ট হবে না ইন শা আল্লাহ।


# ভিসা পেয়ে গেলে জলদি করে বিমানের টিকেট করে ফেলুন। আমি কয়েকদিন ঘাটাঘাটি করে যা বুঝেছিলাম ট্রাভেল এজেন্সি গুলাতে টিকিটের দাম একটু বেশি। আপনারা চাইলে স্টুডেন্ট ইউনিভার্স থেকে অনেক কমে টিকেট কাটতে পারেন। দেশীয় সাইট যেমন, flightexpertbd, gozayaan থেকেও কিনতে পারেন। আমি flightexpertbd থেকে কেটেছিলাম।


# কি কি শপিং করবেন সেটা আপনার নিজের উপরই ডিপেন্ড করে। আপনার চাহিদা আপনার থেকে ভালো আর কে জানবে.? তারপরও একটা আইডিয়া পাওয়ার জন্য দেখতে পারেন Nazmul Hasan Bappy ভাইয়ের এই পোস্টটি: https://m.facebook.com/groups/2265285500218076?view=permalink&id=2582851048461518


# আসার পর পরই ব্লক একাউন্ট আনব্লক করতে পারবেন না। কিছু ফরমালিটি শেষ করতে হয়। আর আসার পরের ইনিশিয়াল খরচ মেটানোর জন্য ১২০


০-১৫০০ ইউরো হ্যান্ড ক্যাশ নিয়ে আসতে পারেন। আসার পরপরই আপনার এই ধরনের খরচ হবে:

https://www.facebook.com/groups/bsfg.pro/permalink/2826315064115114/


# সব কাজ শেষে উপর ওয়ালার নাম নিয়ে চলে আসেন। আসার আগে দেশ থেকে অবশ্যই একটা থাকার জায়গা ঠিক করে আসবেন। আপনাকে রিসিভ করার জন্য সেই সিটির সিনিয়রদের নক করতে পারেন। তারা এই ব্যাপারে খুবই হেল্পফুল।


সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ এত বড় পোস্ট কষ্ট করে পড়ার জন্য। যারা সামার ২০২০ এ আসতেছেন এবং যারা ভবিষ্যতে এপ্লাই করবেন সবার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইলো।


আগামীতে যারা আসবেন আমার জন্য দেশীয় খাবার আনতে ভুলবেন না 😅 । সব ধরনের দেশীয় হালাল খাবার গ্রহণযোগ্য 😂😂😂 ।।

।। আল্লাহ হাফেজ ।।


এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ থেকে করতে পারেন

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।