ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকে ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টসদের রিসিভ



লিখেছেন Kawsar Ul Hoq

Bonn, Germany

IELTS: 7.5 (L-8.5, R-7.5, W-6.5, S-7)

Exam: October 13, 2018.


জার্মানিতে আসা ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টসদের এয়ারপোর্ট থেকে রিসিভ করা, বাসা ম্যানেজ করা, এনরোলমেন্ট সম্পন্ন করায় সাহায্য করা সহ ইউনিভার্সিটি লাইফ ও জার্মানিতে বসবাস সম্পর্কিত সকল প্রকার তথ্য দিয়ে সাহায্য করে ইউনিভার্সিটির ইন্টারন্যাশনাল অফিস। আমার ইউনিভার্সিটি ‘Hochschule Bonn Rhein Sieg’ এর ইন্টারন্যাশনাল অফিস দেশে থাকা অবস্থায় “স্টুডেন্ট হ্যান্ডবুক” পাঠিয়েছিল। যেখানে জার্মানিতে আসার পূর্ববর্তি প্রস্তুতি, আসার পর কি কি করনীয়, কোথায় যেতে হবে, কিভাবে কি করতে হবে এসব ব্যাপারে বিস্তারিত ছিল।


নতুন স্টুডেন্টদেরকে পুরো ১ম সেমিস্টার সকল প্রকার সহযোগিতা করার জন্য একজন ‘Study Buddy’ ম্যানেজ করে দেয়। Study Buddy সাধারণত আপনি যে প্রোগ্রামে পড়বেন সে প্রোগ্রামের সিনিয়র কেউ হয়। যে জার্মানিতে আসা, বাসা খোঁজা, কেনা-কাটায় সাহায্য, পরীক্ষা পড়াশোনা বুঝিয়ে দেওয়া সহ প্রায় সকল প্রকার সহযোগিতা করে থাকে একজন পিউর বড় ভাইয়ের মত। জার্মান ভাষা শেখার জন্য ফ্রি ক্লাসের ব্যবস্থা করে দেয় ইন্টারন্যাশনাল অফিস। এর পাশাপাশি অন্যান্য ৫-৬ টা ভাষা শেখার ব্যবস্থাও আছে আমার ইউনিতে। এছাড়া বিভিন্ন ক্যারিয়ার রিলেটেড ওয়ার্কশপের আয়োজন করে।


ইন্টারন্যাশনাল অফিসের সবচেয়ে বড় আয়োজন কালচারাল ইভেন্টগুলো। ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টসদের মাঝে পরিচিতি ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ার লক্ষ্যে ফ্রি’তে এবং নামমাত্র মূল্যে ওরা অনেকগুলো ট্যুরের আয়োজন করে। প্রতি সেমিস্টারে ওদের ৮-১০ টা ইভেন্ট থাকে। ইতোমধ্যে আমি ২ টা ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেছি। ফ্রি বন সিটি গাইডেড ট্যুর, এবং মোজেল রিভার ক্রুজ ও এল্‌জ ক্যাসল ভ্রমণ।


গাইডেড ট্যুরের সুবিধা হচ্ছে দর্শনীয় স্থানগুলো দেখার পাশাপাশি এর পেছনের ইতিহাসটাও জানা যায়। বন সিটি ট্যুরে বন শহরের ইতিহাস, উৎপত্তি, জার্মানির বড় শহরে পরিণত হওয়ার গল্প জানলাম। শহরের দর্শনীয় স্থানগুলো দেখার পাশাপাশি এই শহরের বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ, শহরের ভৌগলিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক গুরুত্ব সম্পর্কে জানলাম।

মোজেল রিভার ক্রুজ ও এল্‌জ ক্যাসল এক্সকারসনে আমরা ফি দিয়েছিলাম ৭.৫ ইউরো। নিজ উদ্যোগে এই ট্যুর দিলে আমাদের খরচ পড়ত ৫০ ইউরোরও বেশী। কবলেঞ্জ থেকে ৩ ঘন্টার লঞ্চ ভ্রমণে আমরা এল্‌জ পৌঁছাই। দু’পাশে সবুজে ঘেরা পাহাড় আর স্বচ্ছ পানিতে নীল আকাশের প্রতিফলনে মনোমুগ্ধকর দৃশ্য দেখে বেশ উপভোগ করেছি নৌভ্রমণ।

দুপুরে লঞ্চ ছেড়ে বাসে করে ‘Burg Eltz Castle’ এ যাই। Eltz Castle ৮৫০ বছরেরও পুরনো, অক্ষত জার্মানীর প্রসিদ্ধ দুর্গগুলোর একটি। এটি ১১৫৭ সালের কিছু সময় পুর্বে Rudolf von Eltz কর্তৃক নির্মিত হয় বলে ধারণা করা হয়।


প্রাচীন সময়ে ইউরোপিয়ানরা প্রায়ই যুদ্ধবিগ্রহে লিপ্ত ছিলো। তাই প্রতিরক্ষার কথা বিবেচনায় রেখে দুর্গটি গড়ে তোলা হয়। মেইন রোড থেকে এল্‌জ পাহাড়ের মধ্য দিয়ে ১.৫ কিঃ মিঃ পায়েহাঁটা পথে নীচের দিকে এগুলো চারপাশে পাহাড়ে ঘেরা উপত্যাকায় দেখা মেলে ‘বুর্গ এল্‌জ ক্যাসল’র। ভৌগলিক দিক থেকে দুর্গটি এমনভাবে বানানো যেন শত্রুরা চাইলেও সহজে আক্রমন করতে না পারে। ক্যাসলটি ৭০ মিটার উঁচু ডিম্বাকৃতির পাহাড়ে পাথর কেটে নির্মিত হয়।

মজার ব্যাপার হলো তখনকার মানুষ এখনকার তুলনায় সাইজে ছোট ছিলো। গড়ে একফুট ও তারও বেশি ছোট। তাই তাদের ব্যবহৃত দৈনন্দিন জিনিসগুলো বেশ ছোট। দরজাগুলো, যুদ্ধের বর্ম, শোবার খাট, খাবারের বাটি সব ছোট ছোট। ৮৫০ বছরের পুরনো অনেক জিনিসপত্র এখনো বর্তমান আছে। ছাদের নীচের কড়িকাঠ, খাট, চেয়ার, টেবিলগুলো পনের শতাব্দীর সময়কার। ঐসময়কার যুদ্ধের সাজ-সরঞ্জাম, অস্ত্র, প্রতিরক্ষার নানান নিদর্শন সংরক্ষিত আছে।


ট্যুরগুলো খুবই অরগানাইজড্‌, এবং উপভোগ্য ছিলো। অনেক দেশের স্টুডেন্টসদের সাথে পরিচিত হওয়ার সুযোগ পেলাম। জার্মানি সম্পর্কে জানার পাশাপাশি অন্যদেশ, অন্যদেশের মানুষ সম্পর্কেও জানলাম। সবচেয়ে বড় ব্যাপার আমাদের কি কি সুযোগ আছে সেটা সম্পর্কে জানলাম। যেমন, মরক্কো, মিশর, তুর্কি, ইটালি ও অন্যান্য ইউরোপিয়ান দেশগুলো থেকে অনেক স্টুডেন্ট এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে আসছে। কেউ ৬ মাসের জন্য, কেউবা ১ বছরের জন্য। এই প্র্যাক্টিসটা আমাদের দেশে একেবারেই নেই। আমরাও এই প্রোগ্রামগুলোর জন্য এপ্লাই করতে পারি। এতে করে ব্যাচেলর ডিগ্রিটা আরো মর্যাদাপূর্ন হবে, উচ্চ-শিক্ষার পথটা সহজ হবে।

আপনারা যারা জার্মানিতে আসছেন বা আগামীতে আসবেন, আপনার ইউনিভার্সিটির ইন্টারন্যাশনাল অফিসে যোগাযোগ করবেন। অনেক সুযোগ সুবিধা পাবেন, যেটা আপনার জার্মান জীবন সহজ ও আনন্দদায়ক করতে সহায়ক হবে।





এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ থেকে করতে পারেন

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।