ইংরেজি মিডিয়ামে A Level শেষ করে জার্মানিতে ব্যাচেলরে আসতে চাইলে কিছু সুবিধা



বাংলাদেশ থেকে অনেকেই ইংরেজি মিডিয়ামে HSC এর বদলে A Level পরীক্ষা দেন। যদি কেউ A Level পরীক্ষা শেষে জার্মানিতে ব্যাচেলরে আসতে চায়, তাহলে তার কিছু সুবিধা আছে যা বাংলা মিডিয়ামে পড়া স্টুডেন্টরা পায় না। নীচে সেগুলো তুলে ধরা হলো

১। কোন বাংলাদেশী A Level শেষ করে জার্মানিতে ব্যাচেলরে আবেদন করলে, জার্মান ইউনিভার্সিটি তাকে ব্রিটিশ স্টুডেন্টদের মতো কাউন্ট করে। তার কারন A Level এর (O লেভেল থাকলে তাও) সব সার্টিফিকেট ইউকে থেকে আসে। আর সে ইউকের পড়াশুনার স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী পড়াশুনা শেষ করেছে। তাই ঐ স্টুডেন্ট ব্রিটিশ স্টুডেন্টদের মতই সুযোগ পায়। যদিও ঐ স্টুডেন্টের পাসপোর্ট বাংলাদেশের অথবা সে জীবনে ইউকে যায়নি। এটাকে তুলনা করা যায়, যারা জার্মানিতে পড়াশুনা শেষ করে, সেসব বাংলাদেশীদের সাথে যারা জব ক্ষেত্রে একজন জার্মানদের মতই সমান সুযোগ সুবিধা বা মর্যাদা পায়। এই ক্ষেত্রে কোন দেশের নাগরিক তা ব্যাপার না।

২। A Level শেষ করে জার্মানিতে ব্যাচেলরে আবেদন করলে কোন TOEFL/ IELTS অথবা MOI কিছুই লাগে না। তার কাজ ডাইরেক্ট ইংরেজি মিডিয়ামের প্রোগ্রামে আবেদন করা। এর জন্য সে ইউকের কোন অথোরিটির অধীনে A Level শেষ করেছে তা জানালেই হবে। তবে A-level examination এ অবশ্যই একটা ভাষার কোর্স থাকতেই হবে। এটা ভিসার শর্ত। না হলে সাধারণত সবাই Mathematics, Physics, Chemistry & Biology সিলেক্ট করে।

৩। জার্মানিতে যারা ব্যাচেলরে পড়তে আসতে চায় তাদেরকে বাংলাদেশ থেকে বাধ্যতামূলকভাবে কমপক্ষ্যে দেশেই এক বছর শেষ করতে হয়। অনেক ক্ষেত্রে ঐ স্টুডেন্টকে জার্মানিতে আবেদন করতে করতে দুই বছর বা তিন বছরও লেগে যায় (এমন হলে মাস্টার্স করার জন্য আসলেই ভালো)। সেখানে যদি A Level শেষ করে জার্মানিতে ব্যাচেলরে আবেদন করা হয় তাহলে তাকে কোথাও এক বছর না পড়লেও চলবে। মানে ঐ স্টুডেন্ট সরাসরি A Level পাশ করেই কোথাও ভর্তি না হয়ে (IELTS ছাড়া) ব্যাচেলরের জন্য আবেদন করতে পারবে। তার উচিৎ ডাড দিয়ে তার জন্য পারফেক্ট হয় এমন International প্রোগ্রাম খুঁজে বের করা।

৪। তবে A Level শেষ করলেও তাকে অন্য বাংলাদেশী স্টুডেন্টদের মতই ইউনি এসিস্ট অথবা সরাসরি ইউনিতে (প্রোগ্রামের উপরে নির্ভর করে) আবেদন করতে হবে। তাদেরকে যেমন অন্যদের মতই এপ্লিকেশন ফীস দিতে হবে, তেমনি Offer letter পেলে অন্যদের মতই ব্লকড একাউন্টে টাকা বা স্পন্সর দেখাতে হবে।

আমার এই লেখা আপনার পরিচিত কারো উপকারে লাগলে তাকে ট্যাগ করে দিতে ভুলবেন না। আর আপনার ভালো লাগলে অবশ্যই আমাদের গ্রুপে ২০ জন মেম্বার যোগ করে দিবেন। আমাদের গ্রুপ প্রাইভেট হবার কারনে এখানে কোন লেখা শেয়ারের অপশন নেই। তাই আমার দেয়া লেখা নিজেদের টাইমলাইনে ঝামেলা ছাড়া শেয়ার করতে চাইলে এই লিঙ্কের মাধ্যমে করতে পারেন http://tiny.cc/qkq4nz


লেখক Nur Mohammad

এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ থেকে করতে পারেন

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।