একাডেমিক সিভি কিভাবে লিখবেন



লিখেছেনঃ আবরার ফাহিম

প্রথমে বলে নেই, একাডেমিক সিভিতে কোন জিনিসগুলা থাকবে।

১। পরিচয়: নিজের নাম, ইমেইল (ভার্সিটি যেটা প্রভাইড করছে সেটা), পাবলিকেশন থাকলে গুগল স্কলার বা রিসার্চ গেটের প্রোফাইল।


২। পাবলিকেশনঃ যদি কোণ জার্নালে/কনফারেন্সে আর্টিকেল পাবলিশ করে থাকেন তা অবশ্যই ইনক্লুডেড হবে। কারণ, একাডেমীক তে একটা পাবলিকেশন মানে অনেক বড় একটা ব্যপার। আপনি ঠিক কি নিয়ে রিসার্চ করছেন তা বুলেট পয়েন্ট আকারে থাকবে। বিস্তারিত এর পরিবর্তে কী ওয়ার্ড এর উপস্থিতি থাকবে অনেক।


৩। ওয়ার্ক এক্সপেরিয়েন্সঃ যদি স্টাডি রিলেটেড জব এক্সপ্রেরিএন্স থাকে তবে উল্লেখ করবেন। তাছাড়া আন্ডারগ্রেডে টিচিং এসিস্ট্যান্ট হলে তা উল্লেখ করবেন। এক্ষেত্রে আপনার রোল কি ছিল তা বুলেট পয়েন্ট আকারে থাকবে।


৪। ইউনিভারসিটি প্রজেক্টঃ ইউনিভারসিটি তে করা উল্লেখযোগ্য প্রজেক্টগুলা থাকবে। যেমন ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট। প্রজেক্টে আপনি কি করেছেন তা বুলেট পয়েন্ট আকারে থাকবে।


৫। ইন্টারেস্টস (অপশনাল)ঃ আপনি কোন কোন বিষয়ে ইন্টারেস্টেড সেগুলার লিস্ট। এক্ষেত্রে ইউনিভার্সিটিতে যে সাবজেক্টে এপ্লাই করছেন সেটা এবং এই রিলেটেড ব্যপারগুলা থাকবে। (machine learning, data science etc) or (problem solving, algorithm) যেগুলার সাথে যেগুলা যায় আরকি।


৬। অনার এবং এওয়ার্ড (অপশনাল)ঃ যদি পেয়ে থাকেন উল্লেখ করবেন।


৭। স্কিল(অপশনাল) ঃ কি কি স্কিল আছে তার লিস্ট। যেমন কম্পিউটার সায়েন্সের ক্ষেত্রে কোন কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজে ভাল দক্ষতা আছে সেগুলা।


৮। ল্যঙ্গুয়েজ প্রফিসিয়েন্সি (অপশনাল) ঃ যেহেতু ইউনিভারসিটি আইএলটিএস ছাড়া আপনাকে নিবে না, তাই আইএল্টিএস এ ভাল স্কোর থাকলে উল্লেখ না করার কারণ দেখি না।


৯। সিজিপিএঃ ভাল(>3) হলে অবশ্যই উল্লেখ করবেন। খুব ভাল না হলে উল্লেখ করার দরকার নেই।


১০। এসএসসি, এইচএসসিঃ যেহেতু একাডেমিক সিভি, এবং ইউনিভারসিটি এডমিশন এর সময় আপনার এসএসসি এইচএসসি এর সারটীফিকেটস/ট্রান্সক্রিপ্ট চায় সুতরাং ইনক্লুড করতে পারেন।


১১। রিলেভেন্ট কোর্সঃ কয়েকটা কোর্সের নাম যা আপনার মাস্টার্সের কোর্সের প্রিরিকুইজিট হিসেবে মনে হয়। রিলেভেন্ট কোর্স যদি কোন অনলাইনে (e,g edx, courseara, mitx, udemy, udacity etc.) করে থাকেন তবে তা উল্লেখ করতে পারেন।


১২। রেফারীঃ দুইজন প্রফেসর যারা আপনাকে চিনেন তাদের নাম, ইমেইল। যাদের থেকে রিকমেন্ডেশন লেটার নিবেন তাদের নাম দিতে পারেন।


১২ টার সবগুলাই কি দিতে হবে?


না , যেগুলা নাই সেগুলা কিভাবে দিবেন। আমার এওয়ার্ড নাই, রেফারী নাই, ওয়ার্ক এক্সপেরিএন্স নাই তাই সেগুলা দেই নাই।


সিভির স্ট্রাকচারঃ সিভিতে কোন জিনিসগুলা উপরে এবং কোন জিনিসগুলা নিচে থাকবে সেটা বুঝে সেট করতে হবে। এজন্য রিলেটেড ভাল ভাল সিভিগুলা গুগল করে দেখতে হবে। এবং সিভি লিখার পর ডিপার্টমেন্টের টিচার/সিনিয়র দিয়ে চেক করিয়ে নেয়া যেতে পারে। সিভিতে অনেক জিনিস লিখে তা জটিল করে ফেলা যাবে না। যে জিনিসগুলা ইম্পরট্যান্ট শুধু সেগুলা স্থান পাবে। এমনকি আপনার সব প্রজেক্ট এর নাম সিভিতে থাকার দরকার নেই। যেগুলা বড় এবং আবেদনকৃত কোর্সের সাথে রিলেটেড প্রজেক্ট সেগুলা থাকলে হবে।


যখন এক্সপেরিএন্স বা প্রজেক্ট এর কথা লিখবেন তখন সময় recent to past হবে। মানে ২০১৯ এর কাজগুলা আগে উল্লেখ করবেন আর ২০১৮-১৭-১৫ পরে ক্রমান্ময়ে।


সিভিতে ফ্যন্সি ফন্ট ইউজ করা যাবে না। ফন্ট সাইজ খুব বড় হবে না, আবার পড়া যায়না এমনও হবে না। (font size 11 or 12) হবে


সিভি কখনই ডক ফাইলে আপলোড দেয়া যাবে না। যারা ওয়ার্ডে সিভি লিখেন তারা অবশ্যই অবশ্যই পিডিএফ এ কনভার্ট করে সিভি আপলোড করবেন।


সিভিতে যে সব লিঙ্ক ইউজ করবেন খেয়াল রাখবেন সে সব লিঙ্ক যাতে ভ্যালিড হয় মানে কাজ করে।


ভার্সিটি যেরকম ভাবে রিনেম করে দিতে বলে সেভাবেই রিনেম করে দিতে হবে। যেমন কোন ভার্সিটি চাইল রিনেম হবে yourname_cv.pdf তাহলে আমার ক্ষেত্রে ফাইল নেম হবে abrarfahim_cv.pdf আপনার ক্ষেত্রে, আপনার নাম_cv.pdf । যদি ভার্সিটি চায় 6.1.0.pdf তাহলে আপনার ফাইল নেম 6.1.0.pdf বানিয়ে আপলোড দিবেন।


এখন কথা হল আমি যা লিখলাম তা এক্স্যাক্টলি ফলো করলে হবে কি না? না, হবেনা। কারণ আপনি সার্চ করলে এর চাইতে ১০০০ গুন ভাল সাজেশন পাবেন। তাই ল্যপ্টোপে কোন একটা এডিটরে আজকেই লিখে ফেলুন আপনার একাডেমিক সিভি।


আপনি উপকার পেলে আমাদের এই BESSiG গ্রুপে আপনাকে ২০জন মেম্বারকে যোগ করিয়ে দেবার অনুরোধ রইলো। তাহলে চেষ্টাটা ভালো লাগবে। ছবির সূত্র ইন্টারনেট।


এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে



Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।