জার্মান ড্রাইভিং লাইসেন্স একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্সোনাল স্কিল



বাংলাদেশে থেকে যারা জার্মানিতে নতুন আসতে চান তাদের বেশির ভাগ লোকের একটাই প্রশ্ন থাকে, ভাই ঐখানে কি কাজ আছে? আমি চলবো কিভাবে?

তাদের জন্য আমার একটি সাজেশন থাকবে, পারলে বাংলাদেশ থেকে ভালো করে ড্রাইভিং শিখে আসেন ( অবশ্যই ম্যানুয়াল গিয়ার্ )। আর ড্রাইভিং লাইসেন্স করার জন্য ২-৩ হাজার ইউরোর একটা বাজেট ধরে নিয়া আসেন। আমি ইউটুবে অনেক প্রলোভন মূলক ভিডিও দেখেছি, যেমন ধরেন, জার্মানিতে লক্ষ টাকা কামাচ্ছে স্টুডেন্টরা। কিন্তু বাস্তবতা একটু অন্য রকম। আমার মতে, জার্মানিতে আসার আগে সব ধরণের মানুষিক প্রস্তুতি নিয়া আসা ভালো।

আপনার কাছে যদি জার্মান ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকে তাহলে আপনাকে জার্মানিতে অন্তত না খেয়ে মরতে হবে না। অবশ্য রিফুজি হিসাবে যারা থাকেন তাদের কথা আলাদা। জার্মানিতে রিফুজিদের অবস্থান আঙ্গেলা মের্কেলেরও উপরে। যাক সেটা অন্য আলোচনা সেটা নিয়া কথা না বলাই ভালো। তাছাড়া বর্তমানে যারা স্টুডেন্ট হিসাবে জার্মানিতে আছেন তারাও ড্রাইভিং লাইসেন্সটা করে নেওয়ার চেষ্টা করেন, পরে টাইম পাইবেন কিন্তু সময় পাইবেন না। জার্মানিতে ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকাটা আপনার জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ স্কিল সেট এর মত। অনেক জব প্রোভাইডার বাধ্যতামূলক ড্রাইভিং লাইসেন্স চেয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে আপনার সকল যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও আপনি সেই সমস্ত জবগুলাতে এপলাই করতে পারবেন না। আমি অনেক কম বাংলাদেশী চিনি যাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে, বেশিরভাগ বাংলাদেশিদের কাছে ড্রাইভিং লাইসেন্স নাই। যে কারণে তাদের কাজের মূল জায়গাটা রেস্টুরেন্ট। আর রেস্টুরেন্টে কাজ খুজার মত এত বিরক্তিকর কাজ আর একটাও নাই। আসা করছি আমার এই সামান্য কথাগুলো আপনাকে নতুন করে ভাবতে শিখাবে। আমি পরবর্তীতে, জার্মানিতে ড্রাইভিং লাইসেন্স কিভাবে করবেন, সেটা নিয়ে বিস্তারিত বলার চেষ্টা করবো।


এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে



লেখক Pijush Sarkar


Senior Consultant

EXXETA AG, Germany

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।