জার্মানিতে যারা ট্যাক্স দিয়ে চাকরি বা ব্যবসা করেন তাদের জন্য সুখবর!!!


জার্মানির পার্লামেন্ট গত বৃহস্পতিবার (৭ই নভেম্বর) একমত হয়েছে প্রায় ৯০ ভাগ মানুষের জন্য ‘solidarity tax’ (Solidaritaetszuschlag) বাতিল করতে। যার মধ্যে সকল বাংলাদেশীরা পড়েছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী শুধু মাত্র যারা জার্মানিতে মিলিওনিয়ার তারাই তাদের আয় থেকে ৩.৫ পারসেন্ট হারে ‘solidarity tax’ (Solidaritaetszuschlag) দিবে। তারা ছাড়া অন্য কাউকে দিতে হবে না। জার্মান অর্থমন্ত্রী Olaf Scholz গত বৃহস্পতিবার পার্লামেন্ট এ নিয়ে বিল পাশ হবার পরে বার্লিনে এই ঘোষণা দেন। পার্লামেন্টের এই বিলে ‘solidarity tax’ বাতিল করবার জন্য ৩৬৯ জন CDU/CSU এবং SPD এর পার্লামেন্ট মেম্বাররা যৌথভাবে মিলে এর সমর্থনে ভোট দেয়।

এখন নিয়ম হল (যা ২০২১ সাল থেকে থাকছে না) যাদের মাসিক আয় ৯৭২ ইউরো (বৈবাহিক দম্পতিদের ক্ষেত্রে ১৯৪৪ ইউরো) পর্যন্ত তাদেরকে solidarity tax দিতে হবে না। এই আয়ের উপরে সকল আয় থেকে ৫.৫ পারসেন্ট হারে solidarity tax দিতে হবে। যেমন যদি কেউ মাসে ২০০০ ইউরো আয় করে তবে (২০০০ - ৯৭২ ইউরো= ১০২৮ ইউরো। এই ১০২৮ ইউরো এর উপরে ৫.৫ পারসেন্ট solidarity tax দিতে হবে)। আবার আয় বাড়ার সাথে সাথে এই ট্যাক্স ২০ পারসেন্ট পর্যন্ত বাড়ে।

এই ‘solidarity tax’ জার্মানিতে ১৯৯১ সালে প্রবর্তন করা হয় যা দুই জার্মানি এক হবার পরে এই ট্যাক্সের টাকা দিয়ে পূর্ব জার্মানিকে ডেভেলপ করার লক্ষ্যে করা হয়েছিলো। শুধুমাত্র ২০১৮ সালেই এই ট্যাক্স বাবদ জার্মান সরকার ১৮.৯ বিলিয়ন ইউরো আয় করেছিলো। এই টাকার মধ্যে আমারও বেতন থেকে জার্মান সরকারের কাটা ‘solidarity tax’ আছে। এখন আইন অনুযায়ী ২০২১ সাল থেকে মিলিওনিয়ার না হলে জার্মানির কাউকে আর এই ট্যাক্স দিতে হবে না (২০২০ সালে দিতে হবে)। আল্লাহ বাচাইছে আল্লাহ আমাকে মিলিওনিয়ার করে নাই। জার্মানিতে এতই ট্যাক্স দিয়েছি যে এখন একটা পয়সা বাঁচলেও মনে হয় আলিবাবার গুপ্তধন পেয়ে গেছি।


খবরের সূত্র (জার্মান ভাষায়) https://bit.ly/2KkFM1O

আপনি উপকার পেলে আমাদের এই BESSiG গ্রুপে আপনাকে ২০জন মেম্বারকে যোগ করিয়ে দেবার অনুরোধ রইলো। তাহলে চেষ্টাটা ভালো লাগবে।

লেখক Nur Mohammad

এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।