জার্মানির কিছু অদ্ভুত আইন

জার্মানির কিছু অদ্ভুত আইন যা আপনাকে আশ্চর্য্য করবে


১। এখানকার Autobahn (মহাসড়ক) এ গাড়ির জ্বালানি শেষ হয়ে গেলে এটা ক্রাইম। এটা ড্রাইভারের দায়িত্ব মহাসড়কে পর্যাপ্ত জ্বালানি নিয়ে গাড়ি চালানো। এখানকার মহাসড়কে কোনো স্পীড লিমিট না থাকার কারণে কোনো গাড়ির খুব কোনো জরুরি কারন ছাড়া গাড়ি থামানো নিষিদ্ধ। আর পুলিশ জ্বালানি শেষ হয়ে গেলে তাকে কোন কারন হিসেবে কাউন্ট করবে না। উল্টো ড্রাইভারের খবর আছে। এই ক্রাইমকে জার্মান ভাষায় বলে 'Verkehrssuenderkartei'

২। আপনি যেভাবেই বাসা ভাড়া নেন না কোনো, আপনি নিজের রুমে ইচ্ছে মতো মিউজিকের ইন্সট্রুমেন্ট বাজাতে পারবেন না। জার্মান আইন অনুযায়ী, ভাড়াটিয়া সকাল 8:00 থেকে 12:00 টা আর দুপুর 2 টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত (দুপুরে না) এমন ইন্সস্ট্রুমেন্টে ব্যবহার করতে পারবে। আবার টানা কতক্ষন ব্যবহার করা যাবে তাও লিমিটেড। যেমন পিয়ানো দিনে সর্বোচ্চ দুই ঘন্টা, আবার ড্রাম হলে সামারে 90 মিনিট অথবা উইন্টারে 45 মিনিট বাজানো যাবে। এমন আইন ইউরোপের কোথাও নেই।

৩। জার্মান আইনে বালিশকে ডিফেন্সিভ অস্ত্র হিসেবে দেখা হয়। এমন কি Cologne শহরে এক ব্যক্তি বালিশ ফাইটে তার দাঁত হারানোর পরে, এই বালিশ অস্ত্র ব্যবহারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা পর্যন্ত করেছে। তাই আপনারাও এই অস্ত্র দিয়ে ঘুমানো ছাড়া অন্য কোনো কাজ করতে যাবেন না। ধরেন, বালিশ দেখিয়ে চাঁদাবাজি করতে যেয়ে ধরা পড়লে অথবা বালিশের ভয় দেখিয়ে কাউকে অপহরণ করতে গেলে পুলিশ মাফ করবে কিনা সন্দেহ 😉

৪। জার্মান আইনে পুলিশকে 'Du (তুই/তুমি)' করে বলা নিষিদ্ধ। একমাত্র Sie (আপনি) করেই বলতে হবে। নাহলে পুলিশ এর জন্য ৬০০ ইউরো পর্যন্ত জরিমানা করতে পারবে। জার্মান ভাষা কম জানেন, এটা বললে মাফ পাবেন না।

আমার এই লেখা আপনার পরিচিত কারো উপকারে লাগলে তাকে ট্যাগ করে দিতে ভুলবেন না। আর আপনার ভালো লাগলে অবশ্যই আমাদের গ্রুপে ২০ জন মেম্বার যোগ করে দিবেন।

আমার লেখার সূত্র https://learnoutlive.com/crazy-german-laws/


লেখক Nur Mohammad


এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ থেকে করতে পারেন



Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।