নতুন সাইকেল আইনের কিছু জরিমানার বিবরন।


জার্মানিতে যাদের সাইকেল আছে, যদি আইন না জানেন তাহলে এবার তাদের খবর আছে!!! প্রায় গত দুই মাসের করোনার বন্ধে জার্মানিতে সব কাজ বন্ধ হয়ে গেলেও জরিমানা আরো কঠোর করার আইন পাশ বন্ধ হয়ে থাকেনি। নতুন আইন অনুযায়ী যাদের সাইকেল আছে, তাদেরকে আইন অমান্য করলে কঠোর জরিমানা করা হবে, যা ২৮শে এপ্রিল থেকে কার্যকর হয়েছে। এখন জার্মানিতে সামার শুরু হয়েছে। এই সময়ে অনেকেই সাইকেল চালান। কিন্তু যদি আইন না জানেন তাহলে সাইকেলের দামের চাইতেও বেশি আপনাকে জরিমানা গুনতে হবে। নিচে জরিমানার বিস্তারিত দেওয়া হলো

১। সাইকেল যদি তার নির্দিষ্ট চালানোর জায়গার বাহিরে চালানো হয় অথবা যেখানে সাইকেল চালানো নিষিদ্ধ সেখানে চালানো অবস্থায় ধরা খেলে ২৫€ জরিমানা (আগে ছিলো ১৫€)। জরিমানা ৩৫€ হবে যদি সাইকেল এমন পাবলিক জায়গায় রাখা হয় যেখানে সাইকেলের জন্য চলাচল করতে অসুবিধা হয়।

২। যদি কেউ সাইকেল চালাবার নির্ধারিত রাস্তায় অন্য কিছু চালায় বা ঐ রাস্তার অপব্যবহার করে(যেমন বাচ্চাদের ওয়াগন বা স্কেটিং করা) তাহলে ৫৫€ জরিমানা (আগে ছিল ১৫€)

৩। রাস্তার পাশে সাইকেলের জন্য নির্দিষ্ট করা লেইনে সাইকেল থামিয়ে কথা বলা বা পার্ক করা নিষিদ্ধ। তারপরেও কোন কারনে ঐ লেইনে সাইকেল থামাতে হলে তা তিন মিনিট পর্যন্ত এলাউ। তিন মিনিটের মধ্যে হলে কোন সমস্যা নেই। তবে যদি তিন মিনিটের বেশি হয় তাহলে ৫৫€ জরিমানা, তা সিরিয়াস কেইসে ১০০€ জরিমানা (আগে এমন কোন জরিমানা ছিলো না)।

৪। সাইকেল, ইলেকট্রিক স্কুটার চালাবার সময়ে এবং রাস্তার পথচারির মধ্যে সব সময়ে শহরের ক্ষেত্রে বাধ্যতামুলকভাবে ১.৫ মিটার দূরত্ব থাকতে হবে আর শহরের বাহিরে হলে ২ মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। আগে এমন নির্দিষ্ট কোন আইন ছিলো না।

৫। আগে সাইকেল থাকলে সাইকেল লেইন দিয়ে রাস্তা ক্রস করতে হলে সিগন্যালের আশেপাশে দাঁড়িয়ে ওয়েট করলেই হতো। তারপরে সিগন্যাল পড়লে রাস্তা ক্রস করলেই হলো। এখন থেকে রাস্তার মোড়ে ক্রস করার জন্য ৮ মিটার দূরত্বে সাইকেল নিয়ে দাঁড়িয়ে সিগন্যালের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। এতে রাস্তার মোড়ে গাড়ির সাথে সংঘর্ষের ঝুঁকি কমবে। যদি এই আইন অমান্য করা হয় তাহলে ৭০€ জরিমানা। আগে এমন কোন জরিমানা ছিলো না। ৬। সাইকেল লেইনে বিনা কারনে ওভারটেইক করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এতে যদি পাশের পথচারীদের সমস্যা হয়, অথবা রাস্তায় কোন অসুবিধা হয় তাহলে জরিমানা করা হবে। সাইকেলের লেইনে একজন আরেক জনের পিছনে সাইকেল চালালে অসুবিধা নেই। তবে আরজেন্ত কেইসে অভারটেইক করা যাবে (যেমন ডাক্তারের কাছে যাওয়া)।

তথ্যসূত্র (জার্মান) https://bit.ly/2LzZvef লিখেছেন Nur Mohammad

এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ থেকে করতে পারেন

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।