প্রথমবারের মতো স্টুডেন্ট হিসেবে জার্মানিতে এসে প্রথমেই করনীয়

লিখেছেন Shahab U Ahmed



শুরু হওয়া সেমিস্টারে যেসব শিক্ষার্থী বাংলাদেশ থেকে জার্মানিতে আসছেন; তাদের জন্যে কিছু পরামর্শ।

১. বাংলাদেশ থেকে আসার সময় শীতের পোশাক নিয়ে আসতে পারেন। ইতিমধ্যেই শীত শীত ভাব চলছে জার্মানিতে।

২. পাসপোর্ট: ভিসা; সার্টিফিকেট (মূলকপি); বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিপত্র (এডমিশন লেটার) সতর্কভাবে নিজের সাথে রাখুন। এয়ার পোর্ট চেক ইন করার সময় এগুলো কর্তৃপক্ষ আপনার কাছ থেকে দেখতে চাইবে। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো- ইমিগ্রেশন অফিসার আপনাদেরকে জার্মানির ঠিকানা কিংবা এখানে কোথায় যাবেন অবশ্যই জিজ্ঞেস করবে। তাই আপনার উত্তর রেডি করে রাখুন।

৩.এয়ারপোর্টে নেমে ফ্রি WIFI লিখা প্লেসে গিয়ে জার্মানিতে আপনার পরিচিত ভাই -বোনদের ( যারা আপনাকে রিসিভ করতে আসবে) সাথে যোগাযোগ করতে পারেন সহজেই।

৪. জার্মানিতে বাসা অলরেডি পেয়ে থাকলে; গুগল সার্চ করে এড্রেস বের করে ফেলুন। এখানে এয়ারপোর্টে নেমেই টেক্সি করে নিমেষেই চলে যেতে পারেন আপনার গন্তব্যে।

৫.খুব বেশি জিনিসপত্র নিয়ে আসার দরকার নেই; এখানে জিনিসপত্রের দাম প্রায় বাংলাদেশের মতোই।

৬. অনেকের প্রিয় পোশাক লুঙ্গি; বলা বাহুল্য পোশাকটি এখানে খুঁজে পাওয়া দুরহ। সাথে করে কয়েকটি কিনে নিয়ে আসতে পারেন। পাঞ্জাবির ক্ষেত্রে একই কথা প্রযোজ্য।

৭. এদেশে ইয়াং জেনেরেশন কেডস; জিন্স ব্যবহার করে সর্বত্র। এগুলো এখান থেকেই কম খরচে কেনা যাবে। কাজেই বাড়তি জিন্স; কেডস কিংবা টি শার্ট নিয়ে আসার প্রয়োজন নেই।

৮. সর্বশেষ পরামর্শ থাকবে; কিছু ইউরো সঙ্গে করে নিয়ে আসা ভালো হবে। তাৎক্ষণিক ভাবে এটা খুবই কাজে দিবে।

৯. আসার পর পরই বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন (Immatriculation) করে ফেলুন। তাতে খুব দ্রুতই সেমিস্টার টিকেট পাওয়া যাবে; যা আপনার চলা ফেরা অনেকটা সহজ করে দিবে।

১০। মোবাইলের সিম কিনা। প্রথমে এসেই কোন কন্ত্রাক্টে না কিনে Aldi থেকে AldiSim কিনে ফেলবেন। এটা ঝামেলা ছাড়া। তারপরে বুঝে শুনে আপনি চাইলে সিম পরিবর্তন করতে পারেন।


আজ এ পর্যন্তই। আরো প্রাসঙ্গিক তথ্য পাওয়ায় জন্যে আমাদের গরূপে পোস্ট করতে পারেন; আপনার প্রশ্ন লিখতে পারেন।


এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ থেকে করতে পারেন

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।