বিশ্ববিদ্যালয় পরিচিতিঃ ইউনিভার্সিটি অব পোটসডাম

ইউনিভার্সিটি অব পোটসডাম জার্মানির অন্যতম নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর একটি। প্রায় পচিশ হাজার ছাত্রছাত্রী নিয়ে চারটি সুবিশাল ক্যাম্পাস সম্বলিত এই বিশ্ববিদ্যালয় ব্রান্ডেনবুর্গ প্রদেশের সবচে’ বড় এবং বার্লিন-ব্রান্ডেনবুর্গ রিজিওনের চতুর্থ সবচে’ বড় বিশ্ববিদ্যালয়। ১৯৯১ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া এই বিশ্ববিদ্যালয় জার্মানির বেস্ট ইয়াং ইউনিভার্সিটি। বিশ্ব র‍্যাংকিং এও পিছিয়ে নেই; ২০০-২৫০ এর মধ্যে থাকে সমসময়।





১৭৫৬ সালে ইউরোপের গ্রেট পাওয়ারদের মধ্যে যুদ্ধ বেধে যায়, যেটি চলতে থাকে ১৭৬৩ সাল পর্যন্ত। এজন্য এই যুদ্ধকে ‘সেভেন ইয়ার্স ওয়ার’ বা ‘সাতবছরের যুদ্ধ’ এবং ‘তৃতীয় সিসেলিয়ান যুদ্ধও’ বলা হয়। এই যুদ্ধ একপক্ষে ছিলো ব্রিটিশ এবং প্রুশিয়ান সাম্রাজ্য এবং অন্যদিকে রোমান সাম্রাজ্য, ফ্রান্স এবং মোঘল সাম্রাজ্যসহ অন্যান্য। এই যুদ্ধে ভারত, আমেরিকা এবং ইউরোপসহ এতোই বিস্তৃত ছিলো যে, ইউনস্টোন চার্চিল এই যুদ্ধকেই প্রথম বিশ্বযুদ্ধ হিসেবে আখ্যা দেন। এই যুদ্ধে এংলো-প্রুশিয়ান ব্লক জয় লাভ করলে জার্মান রাজা ফ্রেডেরিক দ্যা গ্রেট যুদ্ধজয় সিলিব্রেশনের জন্য বার্লিন থেকে একটু বাইরে, পোটসডামে এসে, ‘নিউ প্যালেস’ নামে একটি প্রাসাদ নির্মান শুরু করেন ১৭৬৩ সালে। অবকাশ যাপন করতে নির্মিত এই প্রাসাদকে ডেডিক্যাট করেন এংলো-প্রুশিয়ান বিজয়কে।



আপনি যদি পোটসডাম ইউনিভার্সিটিতে পড়েন, তাহলে, ফ্রেডেরিক দ্যা গ্রেটের নির্মিত নিউ প্যালেসের একটি অংশে বসে ক্লাস করার সুযোগ পাবেন। এই প্যালেসের একটি অংশকে বিশবিদ্যালয় ব্যবহার করে এবং এরই একটি অংশকে বিশ্ববিদ্যালয়ের লগোতে ব্যবহার করে। বিশ্বের এমন খুব কম বিশ্ববিদ্যালয় আছে যেটার কোনো বিল্ডিং ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেইজ সাইটের অন্তর্ভুক্ত, এই দিক থেকে পোটসডাম ব্যতিক্রম। প্রতিদিনকার হাজারহাজার পর্যটকের এই বিশ্ববিদ্যালয়ে হাটলে আপনি কখন যে ইতিহাসে ডুব দিবেন, টেরই পাবেন না।


Tomal Torikul ভাই বলেন, 'মাঝে মধ্যে মনে হয়, কোন রাজার বাড়িতে ঘুরতে এসেছি। আমার মতে ইউনিভার্সিটি অব পোটসডাম শুধু একটি নামি বিশ্ববিদ্যালয় নয়, এটার সাথে জড়িত আছে বার্লিন তথা আশপাশের শহর গুলর হাজার বছরের ইতিহাস"। দেখা সবচ’ সুন্দর শহর পোটসডাম বার্লিন থেকে মাত্র ৩০ মিনিতের দূরত্বে হওয়ার কারণে পার্ট-টাইম জব নিয়েও চিন্তা করতে হয় না। আবার একদমই ফ্রেশ একটি এনভায়রনমেন পাবেন, সাথে পাচ্ছেন বার্লিনের সব সুযোগ সুবিধা।


মজার ব্যাপার হচ্ছে, এখানে আবেদন করতে হয় ইউনি এসিস্টের মাধ্যমে কিন্তু কোনোপ্রকার ফী দিতে হবেনা। টিউশন ফী তো ফ্রী আছেই।


হিউম্যানিটিজ এবং সোশ্যাল সাইন্সের জন্য এটি একটি আদর্শ বিশবিদ্যালয়। ১০০ টিরও বেশি প্রোগ্রামের এই বিশবিদ্যালয়ে বেশ কয়েকটি মাস্টার্স প্রোগ্রাম ইংরেজিতে পড়ানো হয়। যেমনঃ · Anglophone Modernities in Literature and Culture (M.A.) · Astrophysics (M.Sc.) · Biochemistry and Molecular Biology (M.Sc.) · Bioinformatics (M.Sc.) · Cognitive Science - Embodied Cognition (M.Sc./Ph.D.) · Cognitive Systems: Language, Learning and Reasoning (M.Sc.) · Data Science (M.Sc.) · Digital Health (M.Sc.) · European Master in Clinical Linguistics (EMCL) (M.Sc.) · International Master/Ph.D. Program for Experimental and Clinical Linguistics (IECL) (M.Sc./Ph.D.) · International Master/Ph.D. Program Clinical Exercise Science (CES) (M.Sc./Ph.D.) · International War Studies (M.A.) · Jewish Theology (M.A.) · Master of Public Management (MPM) · National and International Administration (MANIA) (M.A./Ph.D.) · Polymer Science (M.Sc.) · Remote Sensing, geoInformation and Visualization (M.Sc.) · Toxicology (M.Sc.) লিঙ্কঃ https://bit.ly/2SKznkN


লেখাটি টাইমলাইনে শেয়ার করতে এই লিঙ্কে যান। https://bit.ly/3dqfSpO বিঃদ্রঃ লেখকের অনুমতি ছাড়া এই লেখা কোথাও পোস্ট করা যাবেনা।


লিখেছেনঃ কফিল মাহমুদ, ইউনিভার্সিটি অব পোটডাম।

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।