বায়োলজির স্টুডেন্ট হিসেবে জার্মানিতে আসার প্রস্তুতি


অনার্স এ থাকা অবস্থায় সবাই চিন্তা করে কি করবে, কি করা যায় নানান প্রশ্ন মনে ঘুরতে থাকে।আমার মতে এটার সমাধান হল, প্রথমে আপনি নিজেকে প্রশ্ন করেন আপনি কি করলে মানসিকভাবে সুখে থাকবেন।এই সময় নিজের অবস্থার উপর বিবেচনা করে উপযুক্ত ডিসিশান নেওয়া টা অনেক ক্ষেত্রে সফলতার এক ধাপ বলে আমি মনে করি।এইবার আসি বিভিন্ন সেক্টর এর বিশ্লেষণ নিয়ে।

১. হায়ার স্টাডি ইচ্ছা থাকলে নিজেকে প্রস্তুত করুন এইভাবে যেন পৃথিবীর যেকোন প্রান্তের একজন স্টুডেন্ট এর প্রতিদ্ধন্ধী হিসেবে।

- অনার্স/মাস্টার্স রেজাল্ট (৩.০০ এর উপর হলে ভাল), এর থেকে ভাল করার ট্রাই করতে হবে, এর থেকে কম হলেও টেনশান করার কিছু নাই। প্রয়োজন হচ্ছে ডেডিকেশান।

-স্কিল ডেভেলপ করতে হবে। যেমন, প্রেজেন্টেশন এ নিজেকে এক্সপার্ট করা, সায়েন্টিফিক প্রশ্ন করা এবং সেটার সম্ভাব্য সমাধান বের করার ট্রাই করা। ইংরেজিতে দক্ষ হওয়া, শুধুমাত্র স্পিকিং নয় সায়েন্টফিক লিখালিখিতে নিজেকে ডেভেলপ করতে হবে। - প্রোগ্রামিং শিখা (R, Phython etc)। যেহেতু আমি বায়োলজি ব্যাকগ্রাউন্ডের তাই বায়োলজির স্টুডেন্টদের জন্য এই স্কিলগুলা বাংলাদেশ থেকে আয়ত্ত করে আসলে ভাল হয়। অন্যান্য ব্যাকগ্রাউন্ডের ক্ষেত্রে ভিন্ন হতে পারে। তবে R, Phython সবক্ষেত্রে উপকারী। সেটা জব হোক আর স্টাডি হোক। আপনি যদি বায়োলজির হন তাহলে আমি বলব R/ Python যেকোনো একটা শিখেন। তাছাড়া বায়োমেডিকেল এর জন্য Python টা জরুরি। যদি দেশ থেকে শিখে আসেন তাহলে এইখানে এসে আর শিখতে হবে না। অন্য স্কিল এর জন্য টাইম দিতে পারবেন। আমি Ecology তে পড়তেছি, এইখানে স্ট্যাটিকাল এনালাইসিস এর জন্য R কোর্স বাধ্যতামূলক। বাংলাদেশ থেকে না শিখে আসলে এইখানে এসে শিখতে হবে। মাঝে মাঝে ইকোলজিকাল মডেলিং এর জন্য c++ জানতে হয়। কিন্তু R/Python সবচেয়ে বেশি ইউজ হয়। আর আমি আলাদা করে R/Python এর ব্যাপারে বেশি বলছি। এইগুলা বায়োলজিকাল ডাটা এনালাইসিস এর জন্য লাগে।

২. BCS ইচ্ছা থাকলে আমি মনে করি অনার্স এর ২য় বর্ষ থেকে প্রিপারেশান নেওয়া উচিত। তখন বাংলাদেশের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ি সি জি পি এ অত জরুরি বলে আমি মনে করি না। এক্সচেপ্ট কিছু সাব্জেক্টিভ BCS বাদে। সরকারি জব এর ক্ষেত্রে একই রকম নীতি ফলো করলেই হয়।

৩.প্রাইভেট জব এ বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট অনুযায়ী আমার মনে হয় তেল দেওয়ার মানুষিকতা এবং মামা চাচা খালু থাকলেই সব সম্ভব। কিন্তু কিছু এক্সেপশনাল ফিল্ড আছে যেখানে নিজের যোগ্যতা দিয়েই জব পেতে হয়।তাই এই সেক্টরের জন্য বিশেষ কোন প্রিপারেশান নিতে হয় বলে আমি মনে করি না।

এখন আপনার উপর সবকিছু নির্ভর করে আপনি নিজেকে কোথায় নিয়ে যেতে চান। তবে ডিসিশান নিতে হবে সুনির্দিষ্ট ভাবে যেন কাংখিত লক্ষ্যে পোছানো যায়।

সবার মংগল কামনা করি।

লিখেছেন Shakhawat Hossen

রিসার্চার Helmholtz Zentrum für Umweltforschung - UFZ Studing at University of Jena এই লেখা পড়ার পরে কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত দিতে চাইলে অথবা কাউকে ট্যাগ করতে চাইলে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপে থাকা এই পোস্টে করতে পারেন।

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।