শপিং টিপস ঃ জার্মানিতে আসার সময় কি কি নিয়ে আসবেন

নতুন যারা আসবেন বা আসার প্লান করছেন তারা অনেক সময়ই দ্বিধাদন্দে থাকেন কি শপিং করবেন আর কি করবেন না, অনেকেই না বুঝে অপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রে লাগেজ বোঝাই করেন যার বোঝা আপনাকেই বিরক্ত করে তুলে গন্তব্যে পৌঁছানো পর্যন্ত । সেই ভাবনা থেকেই আমার এই তালিকা---

  • ভাল মানের একটি লাগেজ, জী নিন্মমানের লাগেজ না কিনে ভাল মানের একটি লাগেজ কেনা উচিত অন্যথায় আপনার লাগেজে কোন বিচ্যুতি হলে কাধে করে ও নিতে হতে পারে আপনার মালামাল।

  • যাদের চোখের সমস্যা তারা চশমা নিয়ে আসবেন একাধিক সেট, এখানেও পাবেন তবে দামের ব্যাপারে চোখ কপালে উঠবে।

  • ইউরোপিয়ান কনভার্টার ২-১ টি, ভাল একটি মাল্টিপ্লাগ কেননা এখানকার সকেটগুলা বাংলাদেশের মত নয়।

  • রাউটার নিয়ে আসবেন, এসেই ইন্টারনেট কানেকশন নিতে সাথে নিয়ে আসা আবশ্যক । ল্যাপটপ বা মোবাইল ফোন যদি নতুন প্রয়োজন হয় দেশ থেকেও নিয়ে আসা যায় আবার জার্মানিতে এসেও কিনতে পারবেন, দামে তেমন পার্থক্য নেই তবে বিক্রয়োত্তর সেবা ও রকমারি মডেল বিবেচনার আমি জার্মান শপগুলোকে এগিয়ে রাখব ।

  • শীতের ভারী জ্যাকেট নিয়ে আসা প্রয়োজন, এখানেও পাবেন তবে দাম তুলনামূলক অনেক বেশি।

  • প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বা সনদগুলো্র মুলকপি সাথে নিয়ে আসবেন, জার্মান পাসপোর্ট সাইজের কিছু ছবিও নিয়ে আসবেন, এখানে ছবি তোলা ব্যয়বহুল।

  • ছেলেরা জিন্সের প্যান্ট নিয়ে আসবেন, কিছু হুডি, শার্ট অবশ্যই ভাল মানের নিয়ে আসবেন, আর সাধারন জামাকাপড় এখানেও কিনতে পারবেন, বিভিন্ন উপলক্ষ্যে জামা কাপড়ে অনেক ছাড় পাওয়া যায়, অনেক ক্ষে্ত্রে ছাড়ে কেনা জামাকাপড় এর মুল্য বাংলাদেশ এর চেয়েও কম।

  • জুতা এখানে এসে কিনতে হবে, বরফের উপর পড়ার উপযুক্ত জুতা এখানে সহজলভ্য,নামী দামী ব্রান্ডের জুতা ছাড়ে কিনতে পারবেন। গ্রীষ্মকালে দেশীয় জুতা পড়তে পারবেন তবে বেশি না আনাই ভাল।

  • নামাজ পড়ার জন্য জায়নামাজ, টুপি, এলকোহল মুক্ত সুগন্ধি, মেসওয়াক, পাঞ্জাবি দেশ থেকেই নিয়ে আসা শ্রেয়।

  • শারীরিক কোন সমস্যায় কিছু মেডিসিন সাথে নিয়ে আসবেন,বেশি আনতে চাইলে প্রেসক্রিপশন সাথে রাখা শ্রেয়, এখানে এসে পাবলিক ইন্সুরেন্স করা থাকলে সাবসিডাইজড মূল্যে সকল মেডিসিন পাবেন।

  • একটি ব্যাকপ্যাক নিয়ে আসবেন কাধে করে, এতে যেমন মালামাল ও বহন করতে পারবেন তেমনি এখানে ও ব্যবহার করা যাবে।

  • এবার আসি মসলায়, গোটা হক কিংবা গুড়া মসলা, আপনার চাহিদামত নিয়ে আসবেন, এখানেও ইন্ডিয়ান বা তুর্কি শপগুলোতে মসলা পাওয়া যায় । পোলাও চাল, শরিষার তেল নিয়ে আসতে পারেন যদি পছন্দ করেন।

  • এছাড়া ছাতা, ব্রাশ-পেস্ট, বদনা🤐🤐 ইত্যাদি ইত্যাদি l

এভাবে লিখতে থাকলে বোধহয় শেষ হবে না এই তালিকা, আবারও বলছি জার্মানিতে আপনার সকল প্রয়োজনীয় মালামালই পাবেন, তাই অতিরিক্ত ভারী লাগেজ নিয়ে কস্ট করার প্রয়োজন নেই, আপনার অতি নিত্যপ্রয়োজনীয় আসবাব যেগুলো এখানে এসেই খুজতে হবে সেগুলো নিয়ে আসা শ্রেয়।

© উপরোক্ত লেখায় ভূল-ত্রুটি অনিচ্ছাকৃত, যে কোন ভূল, মতামত বা প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন।

লেখক ঃ Nazmul Hasan Bappy

MA in International Business and Economics

University of Applied Sciences Schmalkalden



Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।