পীযুষ কুরী - ২.৬৮ সিজিপিএ ও জার্মান ভিসা পাওয়ার কাহিনী

লিখেছেনঃ পীযুষ কুরী


শুরুতেই সিজিপিএ ম্যানশন করার কারন হচ্ছে, অনেকেই হতাশ থাকে ব্যাচেলর এর লো সিজিপিএ নিয়ে। আমি নিজেও ছিলাম, কিন্তু এই দীর্ঘ জার্নি তে এটাকে ই কারন বানিয়েছি। তো আমার সাজেশন থাকবে, রেজাল্ট নিয়ে হতাশ হবেন না, সাধ্যের ভিতর চেষ্টা করুন, ভগবান হতাশ করবে না আশা করি। হ্যাঁ, পরিশ্রম একটু বেশি ই, কিন্তু যে ভূল টা ব্যাচেলর এ করে এসেছেন, সেটার পরেও স্বপ্ন দেখা,সত্যি করা, অনে। 🙂

Ielts score : 6 ( L-6, R-6, W-6.5, S-6)

Going to: university of kassel

Subject : Economic behaviour and governance.

Apply via uni-assist send papers : 5 May uni-assist forwarded :20th June

offer letter received : 2nd July

Visa interview : 20th August

Email received : 17th september

Visa received : 18th September

University of Hohenheim থেকেও অফার লেটার আসছিলো। টিউশন ফি থাকার কারনে যাই নি আর। লো সিজিপিএ এর কারনে কানাডা তে ও এপ্লাই করসিলাম,সেখান থেকেও অফার লেটার আসছিলো, কিন্তু টিউশন ফি আর পরিচিত তেমন কেউ না থাকার কারনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেই নি।

অনেক গুলা রাত বিনিদ্র কেটেছে, কিছু মানুষ জন অনেক বেশিই সাহায্য করেছে,তাদের অবদানেই এতটুকু পথ পাড়ি দেওয়া,তাদের কাছে ঋণী।



Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।