PR আবেদন -Niederlassungserlaubnis

যারা সাধারনত জার্মানিতে পড়াশুনা করতে আসেন অথবা আসার পরিকল্পনা করছেন, তাদের সিংহভাগ স্টুডেন্টের ঘুরে ফিরে একটাই উদ্দেশ্য থাকে। আর সেই উদ্দেশ্য হল, জার্মানিতে আজীবন থেকে যাওয়া। আপনাদের এই স্বপন একটু পরিষ্কার করার জন্য আমার এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্ট।

১) জার্মান ডিগ্রীধারী ক্যাটাগরি

আমি জানি জার্মানিতে যারা পড়াশুনা শেষ করেছেন, তাঁরা বাই ডিফলট একটু বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেড়ান। জার্মান ডিগ্রীধারীরা অন্য সকল ক্যাটাগরির তুলনায় আগে ভাগেই পি-আর এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। নিচে আমি উল্লেখ করছি, আর কি কি যোগ্যতা থাকলে আর কি কি ডকুমেন্টস থাকার পরে আপনি পি-আর এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।


PR আবেদন করতে যে সকল যোগ্যতা প্রয়োজন

- আপনাকে অবশ্যই জার্মানিতে অনার্স অথবা মাস্টার্স শেষ করতে হবে।

- বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে।

- বৈধ জব ভিসা থাকতে হবে।

- আপনাকে অবশ্যই জার্মানিতে অনার্স অথবা মাস্টার্স শেষে কমপক্ষে ২ বছর চাকরি করতে হবে।

- কমপক্ষে ২ বছর আপনার সেলারি থেকে ট্যাক্স ও পেনশন প্রদান করেতে হবে (ট্যাক্স এবং পেনশন স্বয়ংক্রিয় ভাবে আপনার সেলারি থেকে কেটে নেওয়া হবে)

- জার্মান ভাষার পর্যাপ্ত কমান্ড থাকতে হবে, কমপক্ষে B1 লেভেল।

- কোন ক্রিমিনাল রেকর্ড থাকা যাবে না।

- প্রপার হেলথ ইন্সুরেন্স থাকতে হবে (যদিও চাকরি পাবার পরেই এই ইন্সুরেন্স করতে হয় এবং সালারি থেকে স্বয়ংক্রিয় ভাবে এই ইন্সুরেন্স ফি কেটে নেওয়া হবে)।

- আপনি জার্মানির যে শহরে অবস্থান করছেন, সেই শহরে আপনার বৈধ বাসস্থান থাকতে হবে।


PR আবেদন করতে যে সকল ডকুমেন্টস প্রয়োজন

- বৈধ পাসপোর্ট এবং বৈধ ভিসার ফটোকপি

- জার্মান ফরম্যাটে ১ টি পাসপোর্ট সাইজ ছবি (৬ মাসের বেশি পুরান হয়া যাবে না)

- পি-আর এর আবেদন ফর্ম -এখান থেকে ডাউনলোড করবেন (https://www.berlin.de/formularverzeichnis/?formular=/labo/zuwanderung/_assets/mdb-f86105-labo_4323_antrag_auf_erteilung_der_ne___da_eu.pdf)

- জার্মানি থেকে যে ডিগ্রিটি করেছেন তাঁর সার্টিফিকেট এর কপি।

- আপনার চাকরির কন্ট্রাক্ট পেপার।

- বিগত ৬ মাসের সেলারি স্টেটমেন্ট।

- আপনার চাকরি যে এখনও চলমান আছে তাঁরা প্রমান সরূপ, আপনার চাকরি দাতা থেকে একটি সার্টিফিকেট নিতে হবে। যেটির নাম Arbeitgeber-Bescheinigung ( ১৪ দিনের বেশি পুরাতন হওয়া যাবে না )

- কন্ট্রাক্ট পেপার, যেটার মধ্যে টোটাল বাসা ভারা বিস্তারিত ভাবে লিখা থাকবে।

- সেলারি থেকে যে পেনশন কেটে নিয়েছে বিগত ২৪ মাসে, সেটার প্রমান সরুপ একটি সার্টিফিকেট প্রদান করতে হবে। এই সার্টিফিকেট পেতে নিন্মাক্ত লিঙ্ক এ গিয়ে, আপনার বর্তমান শহরের অফিস খুজেবের করেতে হবে। তাঁর পর সেখানে অফিসিয়াল সময়ে আপনার পাসপোর্ট নিয়ে গিয়ে বলতে হবে আমারা Aktueller-rentenversicherungsverlauf দরকার। ব্যাপার টা খুবি সহজ।

https://www.deutsche-rentenversicherung.de/DRV/EN/Home/home_node.html

- আপনার ইন্সুরন্সে থেকে একটি সার্টিফিকেট লাগবে, যেটা প্রমান করে যে আপনার ইসুরেন্স এখনও চালু আছে। আপনার ইন্সুরেন্সে অফিস এ গিয়ে বলবেন, ভিসা আবেদনের জন্য আমার একটা Bescheinigung লাগবে।

- বাসার রেজিস্ট্রেশান কপি এবং যে প্রতিষ্ঠান থেকে বাসা ভারা নিয়েছেন, তাদের থেকে একটি সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে হবে। সেই সার্টিফিকেটির নাম Wohnungsgeber- Bescheinigung

২) Blue Card ধারী ক্যাটাগরি

Blue Card ধারীরা কিছুটা ভাগ্যবান। হতে পারে তাঁরা একটু বেশি জ্ঞানী। Blue Card ধারীরা কোন রকমের জার্মান ডিগ্রী ছাড়াই পি-আর এর আবেদন করতে পারবেন। নিচে আমি উল্লেখ করছি, আর কি কি যোগ্যতা থাকলে আর কি কি ডকুমেন্টস থাকার পরে আপনি পি-আর এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।


PR আবেদন করতে যে সকল যোগ্যতা প্রয়োজন

- বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে।

- অবশ্যই Blue Card থাকতে হবে।

- আপনাকে অবশ্যই জার্মানিতে ৩৩ মাস চাকরি করতে হবে। তবে যদি জার্মান ভাষা B1 এর সার্টিফিকেট থাকে, তাহলে ২১ মাস পরেই আবেদন করা যাবে।

- কমপক্ষে ৩৩ মাস অথবা ২১ মাস সেলারি থেকে ট্যাক্স ও পেনশন প্রদান করেতে হবে (ট্যাক্স এবং পেনশন স্বয়ংক্রিয় ভাবে আপনার সেলারি থেকে কেটে নেওয়া হবে)

- জার্মান ভাষার পর্যাপ্ত কমান্ড থাকতে হবে, কমপক্ষে B1 লেভেল। তবে চাকরি পাবার ৩৩ মাস পরে আবেদন করলে B1 লেভেল লাগবে না।

- কোন ক্রিমিনাল রেকর্ড থাকা যাবে না।

- প্রপার হেলথ ইন্সুরেন্স থাকতে হবে (যদিও চাকরি পাবার পরেই এই ইন্সুরেন্স করতে হয় এবং সালারি থেকে স্বয়ংক্রিয় ভাবে এই ইন্সুরেন্স ফি কেটে নেওয়া হবে)।

- আপনি জার্মানির যে শহরে অবস্থান করছেন, সেই শহরে আপনার বৈধ বাসস্থান থাকতে হবে।

PR আবেদন করতে যে সকল ডকুমেন্টস প্রয়োজন

- বৈধ পাসপোর্ট এবং Blue Card এর ফটোকপি

- জার্মান ফরম্যাটে ১ টি পাসপোর্ট সাইজ ছবি (৬ মাসের বেশি পুরান হয়া যাবে না)

- পি-আর এর আবেদন ফর্ম -এখান থেকে ডাউনলোড করবেন (https://www.berlin.de/formularverzeichnis/?formular=/labo/zuwanderung/_assets/mdb-f86105-labo_4323_antrag_auf_erteilung_der_ne___da_eu.pdf)

- যদি ২১ মাসের মধ্যে আবেদন করেন, তাহলে জার্মান B1 লেভেল সার্টিফিকেট।

- আপনার চাকরির কন্ট্রাক্ট পেপার।

- বিগত ৬ মাসের সেলারি স্টেটমেন্ট।

- আপনার চাকরি যে এখনও চলমান আছে তাঁরা প্রমান সরূপ, আপনার চাকরি দাতা থেকে একটি সার্টিফিকেট নিতে হবে। যেটির নাম Arbeitgeber-Bescheinigung ( ১৪ দিনের বেশি পুরাতন হওয়া যাবে না )

- কন্ট্রাক্ট পেপার, যেটার মধ্যে টোটাল বাসা ভারা বিস্তারিত ভাবে লিখা থাকবে।

- সেলারি থেকে যে পেনশন কেটে নিয়েছে বিগত ২৪ মাসে, সেটার প্রমান সরুপ একটি সার্টিফিকেট প্রদান করতে হবে। এই সার্টিফিকেট পেতে নিন্মাক্ত লিঙ্ক এ গিয়ে, আপনার বর্তমান শহরের অফিস খুজেবের করেতে হবে। তাঁর পর সেখানে অফিসিয়াল সময়ে আপনার পাসপোর্ট নিয়ে গিয়ে বলতে হবে আমারা Aktueller-rentenversicherungsverlauf দরকার। ব্যাপার টা খুবি সহজ।

https://www.deutsche-rentenversicherung.de/DRV/EN/Home/home_node.html

- আপনার ইন্সুরন্সে থেকে একটি সার্টিফিকেট লাগবে, যেটা প্রমান করে যে আপনার ইসুরেন্স এখনও চালু আছে। আপনার ইন্সুরেন্সে অফিস এ গিয়ে বলবেন, ভিসা আবেদনের জন্য আমার একটা Bescheinigung লাগবে।

- বাসার রেজিস্ট্রেশান কপি এবং যে প্রতিষ্ঠান থেকে বাসা ভারা নিয়েছেন, তাদের থেকে একটি সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে হবে। সেই সার্টিফিকেটির নাম Wohnungsgeber- Bescheinigung

৩) জার্মান ডিগ্রিবিহীন ক্যাটাগরি

আপনারা যারা জার্মানিতে আসার পরে কোন পড়াশুনা করেননি আবার Blue Card ও নেই কিন্তু চাকরি করছেন। আপনারা আপনাদের চাকরি শুরু হবার ৪৮ মাস পরে পি-আর এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। নিচে আমি উল্লেখ করছি, আর কি কি যোগ্যতা থাকলে আর কি কি ডকুমেন্টস থাকার পরে আপনি পি-আর এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।


PR আবেদন করতে যে সকল যোগ্যতা প্রয়োজন

- জার্মান ডিগ্রিধারি দের যে সকল যোগ্যতা লাগবে পি-আর এর আবেদন করতে, প্রায় একই যোগ্যতা লাগবে এই ক্যাটাগরিতে। তবে সে ক্ষেত্রে আপনাকে জার্মান ডিগ্রি দেখাতে হবে না। কিন্তু আপনি চাকরি পাবার ৪৮ মাস বা ৪ বছর পরে পি-আর এর আবেদন করতে পারবেন।


PR আবেদন করতে যে সকল ডকুমেন্টস প্রয়োজন

- জার্মান ডিগ্রিধারি দের যে সকল ডকুমেন্টস লাগবে পি-আর এর আবেদন করতে, প্রায় একই ডকুমেন্টস লাগবে এই ক্যাটাগরিতে।

৪) যে ভাবে প্রক্রিয়া শুরু করবেন

এইতো জার্মান ডিগ্রিধারীরা চাকরির ২ বছর হয়ে যাবার ৪ মাস আগে থেকেই এই ডকুমেন্ট গুলো জোগাড় করা শুরু করে দিন। Blue Card এর ক্ষত্রে ২১ বা ৩৩ মাস হবার ৪ মাস আগেই ডকুমেন্টস গুলো যোগার শুরু করে দিন এবং যাদের জার্মান ডিগ্রি নাই কিন্তু জব করছেন তাঁরা ৪৮ মাস হবার ৪ মাস আগেই ডকুমেন্টস যোগার করা শুরু করে দিন। এই ভাবে ডকুমেন্ট গুলো জোগাড় হয়ে গেলে আপনাকে আর কে ঠেকায় কে সৃষ্টিকর্তা ছাড়া।

এইবার পি-আর আবেদনের ফর্ম টি পুরন করে, উপরক্ত ডকুমেন্টস গুলো একসাথে করে, আপনার নিজ শহরের Ausländerbehörde তে পাঠিয়ে দিন এবং ২ থেকে ৩ সপ্তাহ অপেক্ষা করুন। Ausländerbehörd আপনার ডকুমেন্টস গুলো পরীক্ষা নিরিক্ষা করে আপনাকে ২ থেকে ৩ সপ্তাহের মধ্যে কনফার্ম করবে চিঠির মাধ্যমে। খেয়াল রাখবেন, আপনার নাম যেন অবশ্যই চিঠির বক্স এর গায়ে লিখা থাকে।

Ausländerbehörd এর যদি আপনাকে পি-আর দিতে কোন আপত্তি না থাকে (সাধারনত থাকে না) তাহলে ওই চিঠিতেই তাঁরা উল্লেখ করে দিবে যে, কবে নাগাদ আপনাকে ওই উপরক্ত ডকুমেন্টস গুলর মাইন কপি নিয়ে Ausländerbehörd তে যেতে হবে। তবে যাওয়ার সময় মনে করে আপনার চাকরি দাতা থেকে নতুন আরেকটি Arbeitgeber-Bescheinigung নিয়ে যেতে হবে

নিদ্ধারিত কক্ষে সকল ডকুমেন্টস জমা দেবার পরে, আপনি যদি পি-আর কার্ড এ চান, সে ক্ষেত্রে কার্ড পেতে সময় লাগবে ১ মাস। আর যদি পাসপোর্ট এ পি-আর নিতে চান, তাহলে তখনি পেয়ে যাবেন।

৫) আবেদনের আগে একটু মাথা খাটান

আমি যে ভুলটি করেছিলাম, সেটা হল ২৪ মাস হয়ে যাবার পরে আমার ডকুমেন্টস গুলো Ausländerbehörd এ পাঠাইছিলাম। যারা কারনে আমার বাড়তি ৪ মাস সময় বেশি লেগেছিল। আপনারা চাইলে আপনাদের নিজ নিজ ক্যাটাগরি অনুযায়ী আবেদনের সময় হবার ৪ মাস আগেই ডকুমেন্টস গুলো Ausländerbehörd এ পাঠায় দিতে পারেন। এতে করে আশা করি নিদ্ধারিত সময় শেষ হতে হতেই পি-আর আপনার হাতে থাকবে। আমি ৪ মাস আগেই ডকুমেন্টস Ausländerbehörd টে পাঠাতে বলছি, কারন পি-আর প্রসেস হতে ৪ মাস সময় লাগে।

৬) পি-আর এর ভিসা ফি

- পি-আর কার্ডে নিলে খরচ পরবে ১১৩ ইউরো

- পাসপোর্টে পি-আর নিলে খরচ পরবে ৫৯ থেকে ৬৫ ইউরো

Writer: Torikul islam

Subscribe to Our Newsletter

© BESSiG. বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য যেকোন ওয়েবসাইট বা ব্যবসায়িক কার্যক্রমে ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।